সিসিক নির্বাচনে পরিবর্তন চায় বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে মেয়র পদে ব্যাপক আলোচনায় এখন সিলেট মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন ও কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদিসহ বেশ কয়েকজন প্রার্থী হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নাসিম সমর্থকরা মেয়র প্রার্থী হিসেবে নাসিম হোসেইনের নাম ব্যাপক ভাবে প্রচার করছেন। অবশ্য গত নির্বাচনে নাসিম হোসেইন দলীয় সমর্থন চেয়ে আবেদন করলেও দলের সমর্থন তিনি পাননি। তখন দল থেকে সমর্থন পান বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

অপর দিকে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রথম প্যানেল মেয়র ও তিনবার নির্বাচিত কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদিকে মেয়র হিসেবে দেখতে চায় তৃণমূল বিএনপির একটি অংশ।

বিএনপির সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বিভিন্ন কারনে বিএনপির হাইকমান্ড আরিফুল হকের উপর ক্ষুব্ধ। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের পর নিজেকে নিরাপদে রাখতে গিয়ে আরিফ সরকারী দলের সাথে গভীর সম্পর্ক গড়ে তুলেন। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সহ সরকারের উচ্চ পর্যায়ে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ গড়ে তোলেন।

এসব বিষয় বিএনপির হাইকমান্ডের নজরে পড়ে। বিধায় বিএনপির হাইকমান্ড ভালভাবে বিষয়গুলি নেয়নি। এর ফলে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটিতে আরিফুলের উল্লেখযোগ্য কোন স্থান হয়নি। এমনকি অতি সম্প্রতি আরিফুল হক জেল থেকে মুক্তি পেয়ে ঢাকায় দলের চেয়াপার্সনের সাথে সাক্ষাত করে ফুলের তোড়া দিতে গেলে খালেদা জিয়া চেয়ারে বসেই ফুলের তোড়া গ্রহণ করেন। যেখানে হবিগঞ্জের মেয়র জি.কে গৌছের ফুলের তোড়া খালেদা জিয়া চেয়ার থেকে উঠে হাসি মুখে গ্রহণ করেন এবং অভ্যর্থনা জানান।

অন্য একটি সূত্র জানায়- বিএনপির হাইকমান্ড আরিফুল হকের উপর ক্ষুব্ধ হয়েই বিকল্প প্রার্থী হিসাবে নাসিম হোসাইনকে চিন্তা করছেন। নাসিম হোসাইন হাইকমান্ডের গ্রীন সিগন্যালকে ইতিবাচক হিসেবে নিয়েছেন এবং তৃণমূলে অনানুষ্ঠানিক প্রচার প্রচারনা শুরু করেছেন।

মেয়র পদে নির্বাচনে আগ্রহি কি না এ প্রশ্নের জবাবে নাসিম হোসাইন বলেন, মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য তৃণমূলের চাপ রয়েছে। দলের মনোনয়ন পেলে ইনশাল্লাহ মেয়র পদে নির্বাচন করব।

শেয়ার করুন