মাদকাসক্ত সুমনকে নেতা বানাতে মরিয়া লিয়াকত শিকদার

জবি সংবাদদাতাঃ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের সম্মেলনের মাধ্যমে গত (৩০ মার্চ) বর্তমান কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ। এরপর থেকেই শুর হয়েছে গুঞ্জন, কারা আসছেন জবি ছাত্রলীগের আগামীর কান্ডারী হয়ে।

ঠিক এই সময় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত মরিয়া হয়ে উঠেছেন মাদকাসক্ত সাইফুল্লাহ ইবনে আহমেদ সুমনকে নেতা বানাতে। জানা গেছে, সুমন লিয়াকত শিকদারের শ্যালক হিসাবে পরিচিত।

সুমনের বিরেদ্ধে পুরাণ ঢাকায় চাদাবাজি ,মামলা, এমনকি ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। তাকে কখনও মাঠে রাজনীতে সক্রিয়া হতে দেখা যায়নি বলে অনেকে দাবি করছেন পদ প্রত্যাশীরা। তাদের দাবি, সুমন কতৃক সাংবাদিক মারধর, শিবির নিয়ে প্রকাশে সোডাউন দিতে দেখা গেছে তাকে।

জানা যায়, লিয়াকত শিকদারের বাড়িতে সুমন দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে। এবং তার শ্যালা হিসাবে পরিচিয় দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় থেকে চাদাবাজি, অবৈধ ইয়াবা ব্যাবসা করে আসছে এই সুমন।

এ সম্পর্কে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিবির নেতা বলেন, সুমন নেতা হতে পারলে আমাদের ক্যাম্পাসে নিরাপদে চলতে পারবে তাই তাকে আমরা আমাদের কর্মী দিয়ে সাহায্য করছি। একই কথা বলছেন ছাত্রদলের এক নেতা। জবি ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, সুমন নেতা হলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ইয়াবা কারখানা হয়ে যাবে। বুঝবো ছাত্রলীগে শুধু মুখে বলে কাজ করেনা।

কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণার ১৫ দিন অতিবাহিত হলেও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা কমিটি দেয়নি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

শেয়ার করুন