সিলেটে বিভিন্ন গ্রুপের প্রচুর পরিমাণে রক্ত প্রয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদনঃ সিলেট নগরীর দক্ষিণ সুরমার গোটাটিকর মাদ্রাসার সামনে পুলিশ চেকপোস্টে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় আহতদের চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন গ্রুপের প্রচুর পরিমাণে রক্ত প্রয়োজন। যেসকল গ্রুপের রক্তের প্রয়াজন- বি+ ১৬ ব্যাগ, এবি+ ১০ব্যাগ, এ+ ১৩ব্যাগ, বি- ৮ ব্যাগ।  রক্তদাতাদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে আসার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। যোগাযোগ করুনঃ ০১৭২২০৮৯৮৫১ (সাগর নন্দি), ০১৭৭১৮৪৯২৯৪ (মঞ্জু আলম)-বিজ্ঞপ্তি

গোটাটিকর মাদ্রাসার সামনে পুলিশ চেকপোস্টে বোমা বিস্ফোরণে পুলিশসহ চারজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হচ্ছেন, পুলিশ সদস্য আবু কয়সর, মতিন মিয়া (৩০) ও স্থানীয় লিডিং ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী ওয়াহিদুল ইসলাম অপু (২২) ও মাসুক মিয়া। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার জেদান আল মুসা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সিলেটের আতিয়া মহলে প্যারা কমান্ডোর জঙ্গিবিরোধী অভিযান চলাকালে সন্ধ্যা ৭টার দিকে বোমা বিস্ফোরণের এ ঘটনা ঘটল। বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাস্থলের কাছেই কয়েক মিনিট আগে সাংবাদিকদের ব্রিফ করা হয়েছিল।

তিনি জানান, আহতদের মধ্যে পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যও রয়েছেন। তবে এদের ব্যাপারে তাৎক্ষণিকভাবে বিস্তারিত তথ্য দিতে পারেননি তিনি।

সিলেট মহানগরের শিববাড়ির ‘আতিয়া মহল’ থেকে আধা কিলোমিটার দূরে পাঠানপাড়া এলাকার জামে মসজিদের কাছে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় ওই ‘বোমা হামলা’র ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থলের ৬০ গজের মধ্যেই সেনাবাহিনীর একটি প্রেস ব্রিফিং চলছিল।

এ বিষয়ে সিলেট মহানগরের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার রোকনুদ্দিন ঘটনার পরপরই জানান, ‘হামলার খবর পেয়েছি। ঘটনাস্থলে একটি মোটরসাইকেল পড়ে রয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’

উল্লেখ্য, সিলেট মহানগরের দক্ষিণ সুরমা থানার শিববাড়ি এলাকায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ‘আতিয়া মহল’ নামের একটি বাড়িতে অভিযান চালাচ্ছে সোয়াট ও সেনাবাহিনীর প্যারা-কমান্ডো বাহিনী। ওই বাড়ি থেকে উদ্ধার করা ৭৮ জন নারী-পুরুষ ও শিশুর ব্যাপারে তথ্য দিতে সেনাবাহিনীর আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ের সময় এর অদূরে এই বিস্ফোরণটির ঘটনা ঘটে।

শেয়ার করুন